• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

বরিশাল কারাগারে ফাঁসির আসামীকে জেলারের অমানবিক নির্যাতন

অন্যায়ের প্রতিবাদ / ৫৬৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশকাল ► সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
বরিশাল কারাগারে ফাঁসির আসামীকে জেলারের অমানবিক নির্যাতন
আমরা বিকৃত ছবির স্পষ্টরূপ প্রকাশ করি না।

স্টাফ রিপোর্টার : বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে ফাঁসির আসামীকে রাতভর নির্যাতনের ছবি ভাইরাল। ছবির সূত্র ধরে অনুসন্ধানে বেড়িয়ে আসে চাঞ্চ্যলকর সব তথ্য।
বেশ কিছুদিন যাবৎ নিুমানের খাবার ও কেন্টিনের সকল পণ্যের দ্বিগুণ দামের প্রতিবাদ করায় গত নভেম্বর মাসের ২৩ তারিখ রাতে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মো: শাহ আলমের নির্দেশে একাধিক কারারক্ষীরা এক ফাঁসির আসামীকে অমানবিক নির্যাতন চালায়।
নির্যাতনের স্বীকার আসামীর নাম মো: শেখ হাসান। যার কয়েদী নং ৭২২০/এ। হাসান একটি হত্যা মামলায় ফাঁসির আসামী হিসেবে বেশ কয়েক বছর যাবৎ বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের কনডেম সেলে বন্দী রয়েছেন। তিনি ঝালকাঠি জেলার শেখের হাট ইউনিয়নের রাজপাশার শেখ আবুল হোসেনের ছেলে।
ফাঁসির আসামী হাসানকে নির্যাতনের সূত্র ধরে অনুসন্ধান করলে সম্প্রতি কারাগার থেকে মুক্ত হওয়া একাধিক আসামীরা অভিযোগ করেন, কারাগার কর্তৃপক্ষজেলবন্দীদের একদিকে যেমন নিুমানের খাবার দিচ্ছেন, অন্যদিকে কারা কেন্টিনের সকল পণ্য দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে।তারা আরো বলেন, কোন অনিয়মের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলেই জেলার শাহ আলমের নির্দেশে কেস টেবিলে ডেকে এনে তার ওপর চলে অমানবিক নির্যাতন। পাশবিক নির্যাতনের ভয়ে জেলারের বিরুদ্ধে জেলের ভিতরে কোন আসামী বা কয়েদী কেউই মুখ খুলতে চায় না।


►► আরো দেখুন: ফেসবুক থেকে যেভাবে মাসে ১ লক্ষ টাকা ইনকাম করবেন


এদিকে ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে দেখা যায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী হাসানকে নির্যাতনের ফলে শরীরের পিছনের সম্পূর্ণ অংশ কালো হয়ে গেছে। হাসানকে নির্যাতনের বিষয়ে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের ডিআইজি (প্রিজন) মো: টিপু সুলতান বলেন, ‘কারাগারে আসামীদের মারধর কিংবা নির্যাতনের কোন সুযোগ নেই। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

কারাগারে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামীর নির্যাতনের বিষয়টি সম্পর্কে সিনিয়র জেল সুপার প্রসান্ত কুমার বণিক বলেন, ‘হাসানকে নির্যাতনের বিষয়টি তিনি অবগত নন।’ তিনি আরো বলেন, তদন্তে অপরাধ প্রমাণিত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মো: শাহ আলমের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করলে তিনি ফোন কেটে দেন। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের বরিশাল বিভাগের গভর্নর মাহামুদুল হক খান মামুন বলেন, কারাগারে আসামীদের মারধর সম্পূর্ণ মানবাধিকার লংঘন। নির্যাতনের ঘটনায় যারা জড়িত তিনি তাদের আইনের আওতায় এনে কঠর ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করেন।


এই বিভাগের আরো সংবাদ

আমাদের ফেসবুক পেজ

Facebook Pagelike Widget