• বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
সংবাদ শিরোনাম
আমীরগঞ্জে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ব্যবসায়ী পান্না নারী উত্ত্যক্তকারী সোহাগের মুক্তির দাবীতে থানা ঘেরাও! নির্বাচন বানচাল করতে বিএনপি প্রার্থী হান্নানের নাটক বাটার গলিতে বৃদ্ধার সম্পদ দখলের পায়তারা সন্ত্রাসী নুরী বাহিনীর ইউনিভার্সিটি অব গ্লোবাল ভিলেজ’র চেয়ারম্যান ইমরানের দুর্নীতি ফাঁস বিএম কলেজ ছাত্রদলের আহবায়ক বাবুকে মহানগর ছাত্রদলের সংবর্ধনা সময়ের লড়াকু সাংবাদিক এম. লোকমান হোসাঈন এর জন্মদিন পালিত ‘জিম্মি’ সাংবাদিকদের পাশে থাকবে অনলাইন প্রেস ইউনিটি কারাগারে আসামীকে মারধর, স্বীকার করেলেন জেল সুপার বরিশাল কারাগারে ফাঁসির আসামীকে জেলারের অমানবিক নির্যাতন

নিয়োগ পরীক্ষায় জালিয়াতির দায়ে পাঁচ পরীক্ষার্থীকে আটক

অন্যায়ের প্রতিবাদ / ৮৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশকাল ► শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

ডেস্ক রিপোর্ট  : নিয়োগ পরীক্ষায় জালিয়াতির দায়ে পাঁচ পরীক্ষার্থীকে পুলিশে সোপর্দ করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। শনিবার অফিস সহায়ক নিয়োগ পরীক্ষার সময় পাঁচ জন পরীক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আটককৃত পরীক্ষার্থীরা হলো নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার গরমা গ্রামের মো. আল মামুন তালুকদার, ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার দেওলা শিবপুর গ্রামের মো. হামিম, ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার বাঘুটিয়া গ্রামের মো. আকরাম হোসেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মজলিশপুর গ্রামের মো. তাকরিম আহমেদ ও ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের বিরই গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, গত শুক্রবার বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অফিস সহায়ক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা রাজধানীর ৮টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়। শনিবার এর মৌখিক পরীক্ষা নেওয়ার সময় এই পরীক্ষার্থীদের আচরণ এবং প্রশ্নের জবাবে পরীক্ষকের সন্দেহ হয়। এ সময় তাদের লিখিত পরীক্ষায় দেয়া বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর জিজ্ঞাসা করলেও তার জবাব তারা মৌখিক পরীক্ষার সময় দিতে ব্যর্থ হন। এ সময় বোর্ডের সদস্যরা তাদের হাতের লেখা মিলিয়ে দেখেন উত্তরপত্রে উল্লেখিত হাতের লেখা তাদের নয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পরীক্ষার্থী মোহাম্মদ আল মামুন তালুকদার স্বীকার করেন, তার লিখিত পরীক্ষা দিয়েছেন জনৈক সৈকত জামান। অপর পরীক্ষার্থী মো. হামিম স্বীকার করেন, তার পরিবর্তে লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার মো. কেফায়েত উল্লাহ খন্দকারের ছেলে মো. সুমন খন্দকার।

পরীক্ষার্থী মো. আকরাম হোসেন জানায় লিখিত পরীক্ষায় তার পরিবর্তে ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা উপজেলার হারুন মাতুব্বরের ছেলে জুয়েল মাতুব্বর অংশ নেয়। পরীক্ষার্থী তাকরিম আহমেদ স্বীকার করে যে ১০ হাজার টাকার চুক্তিতে তার পরীক্ষা দিয়েছে জনৈক ওমর ফারুক। অপর পরীক্ষার্থী মো. আনোয়ার হোসেন স্বীকার করেন বিআরডিবিতে চাকরিরত জনৈক আলমগীর কবির সরকারের মাধ্যমে একজনের সঙ্গে চুক্তি করেন। ঐ ব্যক্তি তার পরীক্ষা দিয়েছে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ

আমাদের ফেসবুক পেজ

Facebook Pagelike Widget