• বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

তহশীলদার পান্নার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন কর্তৃপক্ষ

অন্যায়ের প্রতিবাদ / ২৯৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশকাল ► রবিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২০
তহশীলদার পান্নার ৭ কোটি টাকার চাঁদাবাজী

স্টাফ রিপোর্টার : জেলা প্রশাসকসহ ৩ কর্মকর্তার নামে তহশীলদার পান্নার চাঁদাবাজী! শিরোনামে সময়ের বার্তায় সংবাদ প্রকাশের পর এবার তহশীলদার পান্নাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিলেন, বরিশাল সদর সহকারী কমিশনার ভূমি মো: মেহেদী হাসান। যার স্বারক নং-১৭৩৩।

আগামী ১০ কার্যাদিবসের মধ্যে বরিশাল সদর উপজেলার ইউনিয়ন ভূমি অফিসের, ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান পান্নাকে সন্তোশজনক জবাব দাখিল করার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

►► আরো দেখুন: বিসিএস প্রস্তুতি : যে বইগুলো পড়তেই হবে (ডাউনলোড লিংকসহ)

নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, চন্দমোহন ইউনিয়ন ভূমি অফিসের, ভূমি সহকারী কর্মকর্তা হিসাবে কর্মরত অবস্থায় উক্ত এলাকার জে.এল. ১৩৬ নং চরপাওয়ার মৌজা থেকে অসাধু মাটি ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে মাটি কাটা ও বিক্রয় করা হয় এমন তথ্যের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার ভূমি কর্তৃক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হলে, মিজানুর রহমান পান্না অবৈধ মাটি ব্যবসায়ীদের গোপনে তথ্য ফাঁস করে এবং অবৈধ ব্যবসায়ীদের পালিয়ে যেতে সাহজ্য করেছেন।

পরবর্তিতে মাটি ব্যবসায়ীদের জিজ্ঞাসা বাদে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান পান্নার যোগসাজস ও অবৈধ আর্থিক লেনদেনের বিষয়ের মত চঞ্চ্যলকর তথ্য বেড়িয়ে আসে। যা সরকারী কর্মচারি (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা, ২০১৮ এর বিধিমালা ৩ (খ) ও ৩ (ঘ) মোতাবেক অসদাচরণ ও দুর্নীতি আইনে কারণ দর্শানো নোটিশ প্রদান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বরিশাল সদর উপজেলাধীন চন্দ্রমোহন ইউনিয়নের চন্দ্রমোহন মৌজার ‘‘চরপাওয়ার“ চরের জমি অবৈধভাবে কেটে নিয়ে যাচ্ছেন একটি ভুমিদস্যূ বাহিনী। যার বিনিময় প্রতিদিন ১ লাখ টাকা দিতে হচ্ছে এই ইউনিয়ন তহশীলদার মিজানুর রহমান পান্নাকে। গত ২ বছরে প্রায় ৭ কোটি টাকা হাতিয়ে নেন পান্না।

►► আরো দেখুন: বিসিএস প্রস্তুতি : যে বইগুলো পড়তেই হবে (ডাউনলোড লিংকসহ)

অবৈধ মাটি ব্যবসায়ী আব্দুর রহমান বলেন, প্রতিদিন ১ লাখ টাকার বিনিময় বরিশাল জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) ম্যানেজ করছেন তহশীলদার মিজানুর রহমান পান্না। যার ফলে অবৈধ ভাবে মাটি কেটে প্রতিদিন নির্বিঘ্নে বিক্রি করে আসছেন আব্দুর রহমান-সুলতান বাহিনী।

পান্না এছাড়াও চন্দমোহনে ইউনিয়নে নামজারী করতে আসা সাধারণ মানুষদের হয়রানি মাধ্যমে বাড়তি অর্থ হাতিয়ে নেওয়াসহ নানান চঞ্চল্যকর দূর্নীতির সংবাদ গতকাল সময়ের বার্তায় প্রকাশের পর পান্নাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়েছে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ

আমাদের ফেসবুক পেজ

Facebook Pagelike Widget